Unlimited PS Actions, graphics, videos & courses! Unlimited asset downloads! From $16.50/m
Advertisement
  1. Design & Illustration
  2. Comics

কার্টুন আঁকার মূলসূত্র: কার্টুন বডি আঁকার উপায়

by
Length:LongLanguages:
This post is part of a series called How to Draw Cartoons.
Cartoon Fundamentals: The Secrets in Drawing Animals
Cartoon Fundamentals: How to Create Movement and Action

Bengali (বাংলা) translation by Syeda Nur-E-Royhan (you can also view the original English article)

একটি কার্টুন চরিত্র সৃষ্টি করার আনন্দ অপরিসীম। একটি চরিত্র গঠন ও বিকাশের কাজটি শুধুমাত্র তার শারীরিক আকার নির্মাণের সাথে যুক্ত নয়: প্রতিটি চরিত্রের নিজস্ব গড়ন, ব্যক্তিত্ব ও বৈশিষ্ট্য রয়েছে। আপনি যদি ইতোমধ্যে মাথার আকারের অনুপাত এবং মুখভঙ্গি সম্পর্কে জেনে থাকেন তাহলে ভালো। কিন্তু এই জ্ঞান কোন কাজেই লাগবে না আপনি যদি তাদের শারীরিক আকৃতি দিতে না পারেন! একজন শিল্পীকে দর্শকের কাছে বিশ্বাসযোগ্য চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে হলে অবশ্যই এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে।

কার্টুনে সাধারণত বিভিন্ন ধরণের চরিত্র থাকে, যেমন "বোকাসোকা" এবং "মাস্তান প্রকৃতির"। আপনি কি এই বিষয়ে আরও জানতে আগ্রহী? এই টিউটোরিয়ালে আমি আপনাদের ঠিক তাই শিখাবো।


১। কিভাবে শুরু করবেন

চরিত্র সৃষ্টির আগে আমি মনে করি আগে থেকে কিছু খসড়া স্কেচ করে রাখা উচিত। আপনার সৃষ্ট চরিত্রের ধরণ এবং প্রকৃতি নির্ধারণ করার জন্য এটা একদম যথাযথ নির্দেশনা দিতে পারবে।

ভূমিকা রেখে সরাসরি কাজের কোথায় আসি। আজ আমরা যে ধাপগুলো অনুসরণ করবো সেগুলো বেশ সহজ। প্রথমে, দেহের মৌলিক অংশগুলোর আকৃতি এঁকে ফেলুন এবং তারপর তাতে বিভিন্ন ধরণের খুঁটিনাটি বৈশিষ্ট্য যোগ করুন। এই প্রক্রিয়াটি যে কোন চরিত্রের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। সেটা মানুষ হোক, বা প্রাণী বা এমন কোন বস্তু যেটাতে প্রাণ নিয়ে আসতে চাচ্ছেন (উদাহরণ, একটা হাস্যোজ্জ্বল কাপ এঁকে ফেলুন)।

cartoonbodies-01

আপনার স্কেচ পর্বের উপরই প্রতিটি ড্রয়িং নির্ভর করছে। এই পর্যায়ে আপনার কাজের ফলাফল আপনাকে সন্তুষ্ট না করা পর্যন্ত ড্রাফটটিকে বারবার পরিমার্জন করতে থাকুন।

দৈহিক গঠনের অনুপাতের আদর্শ একবার তৈরি হয়ে গেলে পরবর্তী ধাপে অঙ্গভঙ্গি, হাত ও পায়ের নড়াচড়া তৈরি করতে থাকুন। এমনকি মাত্র একটা অবস্থানে থেকেও হাতের সাহায্যে একটা সম্পূর্ণ গল্প বলা যায়।

cartoonbodies-02
হাত একটা খুবই বিস্তৃত এবং জটিল একটা বিষয় (কার্টুনের ক্ষেত্রেও)। কাজেই একটা সম্পূর্ণ টিউটোরিয়াল শুধুমাত্র এর উপরেই করা উচিত।

সংক্ষেপে, কার্টুন ডিজাইন প্রক্রিয়াটি কোন বিরাট রহস্যের আখড়া নয়। ৯৫% শিল্পী কার্টুন চরিত্র এবং তাদের নড়াচড়া কিছু নির্দিষ্ট ব্লকের সাহায্যে তৈরি করে। কারণ এতে পুরো কাজটি আসলেই অনেক সহজ হয়ে যায়!


২। অনুপাত

একটা কার্টুন চরিত্র তৈরিতে অনুপাতের বিষয়টি সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ। শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের আনুপাতিক আকৃতি মাথায় রেখেই প্রতিটি শিল্পীর ছবি আঁকা উচিত। কারণ সেগুলোর উপর ভিত্তি করেই আমরা আমাদের চরিত্রগুলোর গঠনগত বৈশিষ্ট্য নির্ধারণ করবো। যেমন, মাস্তান প্রকৃতির লোকটির এক ধরণের যুদ্ধংদেহী মনোভাব রয়েছে। কাজেই তার মাথা থাকবে ছোট কিন্তু বক্ষঃস্থল হবে প্রশস্ত! তার হাত ও পা হবে শক্তিশালী এবং সুসংগঠিত। তেমনি হবে তার চোয়াল। অন্যদিকে, একটি শান্ত ও বিনয়ী চরিত্র একটা শিশুর শরীরের অনুপাতে তৈরি হবে। শরীরের তুলনায় মাথা বড় থাকবে। আর এই সব কিছুই হবে গোল গোল আকারের! কপাল এবং বড় বড় চোখের মতো অন্যান্য বৈশিষ্ট্যগুলো তাদের ভঙ্গুর ব্যক্তিত্ব ফুটিয়ে তোলার কাজে লাগবে। এমন আরও অনেক কিছু...

অ্যানিমেটেড স্টুডিওগুলোতে ওভাল আকৃতির সাহায্যে চরিত্রের উচ্চতা পরিমাপ করার চর্চা বেশ সুবিদিত। যেমন: একটা শিশুর মাথা সাধারণত তার শরীরের অন্যান্য অংশের তুলনায় বড় হয়। কিন্তু প্রাপ্তবয়স্কদের শরীরের অনুপাত ভিন্ন হয়। এটাও আবার প্রতিটি চরিত্রের লিঙ্গ ও গঠনভেদে ভিন্ন হয়।

cartoonbodies-03
cartoonbodies-03.1
অলীক কার্টুন চরিত্র? তাই তো মনে হচ্ছে।

একটা চরিত্রের সম্পূর্ণ দেহ যখন ডিজাইন (বা অ্যানিমেট) করা হয়, তখন একটা আলাদা কাগজে সেই চরিত্রের বিভিন্ন ড্রয়িং রেখে দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। এভাবে, বিভিন্ন ভঙ্গিমা ও কার্যকলাপের সময় তার দেহের অনুপাত আঁকার জন্য রেফারেন্স পাওয়া যায়।

cartoonbodies-04
বিপরীতমুখী উদাহরণ
cartoonbodies-04.1
যতক্ষণ পর্যন্ত না আপনি একটা আদর্শ দৈহিক অনুপাত খুঁজে পাচ্ছেন ততক্ষণ পর্যন্ত আপনার সৃষ্ট চরিত্রটিকে বিভিন্ন অবস্থান, পরিস্থিতি এবং পোশাকে এঁকে রাখা দরকার। 
cartoonbodies-05
একটা কুকুরছানার নমুনা।

৩। দেহটি একটি নাশপাতি ফল মাত্র!

নাশপাতির আকার বা ওই ধরণের কোন বস্তু ব্যবহার করে শারীরিক গঠন তৈরি করা ডিজাইনারদের একটা প্রচলিত রীতি। এর কারণ হচ্ছে দুইটির মধ্যে মিল সবারই মাথায় থাকে। প্রকৃতপক্ষে, কার্টুন স্টুডিওগুলোতে এটি একটি প্রচলিত কৌশল। কারণ অনেকজন শিল্পী একই চরিত্র নিয়ে কাজ করেন এবং প্রতিটি ছবিতে সঠিক অনুপাত বজায় রাখা বাঞ্ছনীয়।

cartoonbodies-06
cartoonbodies-07.1

উপরের উদাহরণটি এই কৌশলের কার্যকারিতার একটি প্রমাণ। আপনি একই টেম্পলেট ব্যবহার করে বিভিন্ন চরিত্র আঁকতে পারেন! টেম্পলেটের উপর ভিত্তি করে ছবি আকার কারণ হচ্ছে মানুষের মস্তিষ্কে তৎক্ষণাৎ সনাক্তকরণ প্রক্রিয়া সৃষ্টি করা। বিশেষ করে শিশুদের মধ্যে - যেখানে বুঝার জন্য সবকিছুই সহজ করে দিতে হয়। নাশপাতির আকারে দেহ আঁকলে তা একটা গতিশীলতা প্রদান করে এবং চরিত্রের প্রতি এক ধরণের আগ্রহ তৈরি করে।

cartoonbodies-08

৪। কঙ্কাল যোগ করা

এখন যেহেতু আমরা জেনে গেছি কিভাবে আকৃতি নির্ধারণ করতে হবে, কাজেই চলুন একটা সাধারণ কঙ্কালের কাঠামো নির্দিষ্ট করে ফেলি। আপনি যদি কার্টুনের ভঙ্গিতে যে কোন চরিত্র আঁকতে যান, তাহলে বিভিন্ন শ্রেণীর কার্টুন, যেমন বিড়াল, পাখি ও মানুষ, এদের পেশী ও হাড়ের মধ্যের পার্থক্য সম্পর্কে জানতে হবে। এই জ্ঞান খুবই দরকারি এবং চরিত্রের শারীরিক সন্ধিস্থানগুলো, যেমন কনুই এবং হাঁটু, এগুলো আঁকার সময় নির্দেশনা দিবে।

cartoonbodies-09
প্যাটার্নটি লক্ষ্য করুন: গোলাকার গঠন - নাশপাতি আকারের দেহ - অস্থির সন্ধিস্থান।

কার্টুনের ক্ষেত্রে আমাদের একটা বিষয় মনে রাখতে হবে যে প্রতিটি দৃশ্য যেন একটি করে গল্প তুলে ধরে। ফটো বা বাস্তবধর্মী ড্রয়িঙের ক্ষেত্রে এমনটা খুব বেশি ঘটে না। তার একটাই কারণ, আর তা হচ্ছে মানুষ তার প্রকৃত অভিপ্রায় লুকিয়ে রাখতে দক্ষ।

কার্টুনের ক্ষেত্রে ব্যাপারটি ভিন্ন। আপনার সৃষ্ট চরিত্রের অঙ্গভঙ্গি ও শারীরিক বৈশিষ্ট্য কোন রকম সংলাপ বা দৃশ্যকল্প ছাড়াই যেন ফুটে উঠে। আর এই কারণেই এটি এত চিত্তাকর্ষক এবং আনন্দদায়ক একটি শিল্পকলা।

cartoonbodies-10
cartoonbodies-11
আপনার স্কেচের সাহায্যে গল্প বলতে শিখুন আর সফল কার্টুনিস্ট হয়ে যান

সংক্ষেপে:

  • আপনার সৃষ্ট চরিত্রের শারীরিক অনুপাত গোলাকার আকৃতি দিয়ে পরিমাপ করুন;
  • বিখ্যাত নাশপাতি পদ্ধতিতে দেহটিকে এঁকে ফেলুন;
  • চরিত্রের অস্থি-সন্ধিগুলোর মূল বিন্দুগুলো আঁকার সময় রেখাগুলোর নির্দেশনা অনুসরণ করুন;
  • আপনি যে কাঠামোটি এঁকেছেন সেটার চারপাশে খুঁটিনাটি যোগ করে আপনার চরিত্রটি পরিপূর্ণভাবে এঁকে ফেলুন।

৫। নাশপাতিটি উল্টে দিন

তার মানে কি এখন থেকে আমরা যতো কার্টুন চরিত্র আঁকবো সবগুলোতেই "নাশপাতি পদ্ধতি" কাজে লাগাতে হবে? সব সময় না। আমরা যদি এই আকৃতিটিকে উল্টে দেই, তাহলে চরিত্রে এক ধরণের শক্তি ও সামর্থ্য ফুটিয়ে তোলা সম্ভব! নিচের উদাহরণগুলো লক্ষ্য করুন।

cartoonbodies-12
cartoonbodies-12.1
দুর্বল মানুষ: নাশপাতি আকারের দেহ। শক্তিশালী মানুষ: উল্টানো নাশপাতি আকারের দেহ। সহজ, ঠিক না?
cartoonbodies-13
আপনি কি নাশপাতির আকারের এই পার্থক্যগুলো এই ড্রয়িঙে চিহ্নিত করতে পারবেন?

আরেকটি মজার উপমার উপর ভিত্তি করে চরিত্রগুলোকে আঁকা যায়। যেমন কিছু বস্তু আছে যা নির্দিষ্ট কিছু শারীরিক ধরণের সাথে মিলে যায়। যেমন নিচের উদাহরণটি দেখুন:

cartoonbodies-14
মূলত আমরা ওই একই নাশপাতি পদ্ধতি ব্যবহার করছি। আমরা ওই একই কৌশলের উপর ভিত্তি করে ভিন্ন একটি চর্চা অনুসরণ করছি। একজন শিল্পী হিসেবে আপনি আপনার সুবিধামত যে কোন পদ্ধতি বেছে নিতে পারেন!

৬। বোকাসোকা চরিত্র

বোকাসোকা চরিত্র সেটাই যেটা দুই পায়ে হাঁটে (এমনকি প্রাণীর ক্ষেত্রেও)। এটি দেখতে হাবাগোবা, বেমানান, এবং সাধারণত, অলস হয়ে থাকে।

এই ধরণের চরিত্রগুলোকে প্রায়ই ভীতু হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। তারা সাধারণত যে কোন ঝামেলা এড়িয়ে চলতে পারলেই সবচাইতে খুশি। এই ধরণের চরিত্র পড়ুয়া বা হতাশ কোন ব্যক্তি হিসেবেও উপস্থাপন করা হয়।

cartoonbodies-15

এই ধরণের কার্টুন চরিত্র আঁকার ক্ষেত্রে এক ধরণের টেম্পলেট অনুসরণ করতে হয়। যদিও এ ব্যাপারে নির্দিষ্ট কোন নিয়ম নেই, এবং প্রতিটি চরিত্রের স্বভাব অনুযায়ী এটি পরিবর্তন করে কাজে লাগানো যায়:

  • সরু মাথা;
  • বড় বড় নাক (বা শুঁড়, প্রাণীদের ক্ষেত্রে);
  • বড় বড় দাঁত;
  • সরু কাঁধ;
  • বস্তুত কোন চিবুক নেই;
  • নাশপাতি পদ্ধতি (কখনোই উল্টানো হবে না, সব সময় সোজা দিকে থাকবে!)।

মূলত, এই প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলো দিয়েই একটা বোকাসোকা চরিত্র বানিয়ে ফেলা সম্ভব। এই পদ্ধতিটি অনুসরণ করে যে কোন চরিত্রে এইসব বৈশিষ্ট্য ফুটিয়ে তোলার দক্ষতা অর্জনের আগ পর্যন্ত ইচ্ছামতো একে নিয়ে খেলাধুলা করুন।

cartoonbodies-16
কী? দোপেয়ে সিংহ? দাঁড়ান... এটা কি একটা বোকাসোকা সিংহ?

মানুষের মতো হাঁটাচলা করে এমন সব প্রাণীই আবার "বোকাসোকা" নয় কিন্তু। এদের অনেকের আবার ব্যঙ্গাত্বক এবং বিদ্রূপাত্মক টোনে কথা বলে। এই সব চরিত্রের উদাহরণ হিসেবে আমরা উডি উডপেকার এবং বাগস বানির কথা বলতে পারি।


৭। আমাদের জ্ঞান কাজে লাগান: একটি বীরত্বপূর্ণ চরিত্র সৃষ্টি করুন

এখন আমরা এতক্ষণ যা শিখেছি তার উপর ভিত্তি করে একটি চরিত্রের দেহ গঠন করবো। চলুন শুরু করা যাক! 

প্রথম ধাপ

আমি এলোমেলোভাবে আঁকা শুরু করবো। কয়েকটি স্কেচ তৈরি করা নিয়ে চিন্তিত হবেন না যতক্ষণ না আপনি একটি আদর্শ অনুপাত খুঁজে পাচ্ছেন। এটা খেলারই একটা অংশ!

আমরা মাথা এবং শরীর গোলাকার আকৃতির সাহায্যে গঠন করা শুরু করেছি:

cartoonbodies-17

খেয়াল করে দেখুন যে আমরা আমাদের চরিত্রটির দেহের পরিমাপ কোন কষ্ট ছাড়াই নির্ধারণ করে ফেলেছি।

cartoonbodies-18
খেয়াল করে দেখুন যে আমরা এখানে উল্টানো নাশপাতি পদ্ধতি ইতোমধ্যে কাজে লাগিয়ে ফেলেছি যেহেতু এটা একটা শক্তিশালী চরিত্র!

অনুপাতের সাথে সাথে আমরা চরিত্রটির মধ্য দিয়ে কয়েকটি নির্দেশনামূলক রেখা টেনে দিয়েছি যাতে তার অঙ্গভঙ্গি নির্ধারণ করা যায়।

দ্বিতীয় ধাপ

এখন অস্থি-সন্ধিগুলোর অনুকরণ করে কিছু রেখা আঁকি। খেয়াল করে দেখুন যে আমরা কার্টুনের বীরদের কিছু প্রচলিত দেহভঙ্গি এখানে যোগ করেছি যেখানে শরীরের ভার একটা মাত্র পায়ের উপর দেওয়া আছে।

cartoonbodies-19

নিতম্বস্থলটি একটি গামলার আকারে চিহ্নিত করা জরুরী। কারণ এভাবে নড়াচড়া পর্যবেক্ষণ করতে সুবিধা হবে।  দেহভঙ্গিমায় গতিশীলতা আনতে নিতম্বের এই নড়াচড়া জরুরী।

তৃতীয় ধাপ

দারুণ! সবশেষে, আমরা আমাদের মহান বীরপুরুষের চেহারার খুঁটিনাটি এবং শরীরের পেশী যোগ করবো।

cartoonbodies-20
হা করে তাকিয়ে থাকা বন্ধ করো... আমি একটা সামান্য স্কেচ মাত্র!

পেশী আঁকতে হলে আপনাকে দৈহিক গঠনতন্ত্রের কিছু মৌলিক বিষয় জানতে হবে। নইলে চরিত্রের প্রয়োজন অনুযায়ী ঠিক পরিমাণে পেশী যুক্ত করা কঠিন হয়ে যাবে।

চতুর্থ ধাপ

সম্পূর্ণ কাঠামোটি নির্ধারিত হয়ে গেলে আমরা এবার চরিত্রটিকে কিছু পোশাক পরাতে পারি।

cartoonbodies-21

ঠিক আছে। এখন আমাদের চরিত্রটি আঁকা শেষ হয়েছে! পোশাক পরিচ্ছদ আর প্রয়োজনীয় কিছু অলঙ্করণের পর আমরা এই চমৎকার চিত্রটি পেয়ে গেছি। আমরা কি শুধু এই একটি ছবি দিয়ে একটি গল্প বলতে পারব?


দারুণ হয়েছে, আপনার কাজ এখন শেষ!

এই তো, এতোটুকুই! এখানে কার্টুনের রীতিতে দেহ আঁকার প্রক্রিয়াগুলো উল্লেখ করা হয়েছে। তার চাইতে বড় কথা, গোলাকার এবং ডিম্বাকার আকৃতি একসাথে কাজে লাগিয়ে কিভাবে একটা চরিত্রের দেহ গঠন করা যায় তা আমরা শিখেছি। আমরা আরও শিখেছি বীরোচিত/ শক্তিশালী/ মাস্তান প্রকৃতির চরিত্রের সাথে অসহায়/ দুর্বল প্রকৃতির চরিত্রের কোথায় কোথায় পার্থক্য রয়েছে। আর নাশপাতি পদ্ধতি কাজে লাগিয়ে কিভাবে এই চরিত্রায়ন সম্ভব তাও জেনেছি। সবশেষে, মানুষ এবং প্রাণী উভয়ের ক্ষেত্রে "বোকাসোকা" ভাবটা কিভাবে আনা যায় সেটাও আবিষ্কার করেছি। সোনার কাঠি ছুঁইয়ে ঘুমিয়ে যাওয়ার আগে বলে রাখি, আমরা একদম শূন্য থেকে শুরু করে একটি বীরপুরুষের চরিত্র এঁকে ফেলেছি!

cartoonbodies-25

আপনি কি এখন বিশ্বাস করতে পারছেন যে একটা সম্পূর্ণ কার্টুন চরিত্র আপনি নিজেই চাইলে মাথা থেকে পা পর্যন্ত এঁকে ফেলতে পারবেন? দেখার অপেক্ষায় রইলাম! আপনার আঁকাঝোঁকা নিচে আমাদের সাথে শেয়ার করুন। আর কোন প্রশ্ন থাকলে আমি খুশি মনেই নিচের কমেন্টে তার উত্তর দিবো।

cartoonbodies-26_v2
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Looking for something to help kick start your next project?
Envato Market has a range of items for sale to help get you started.